শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা হয়েছে সরকারি দলের সিদ্ধান্তেই।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর অমানবিক ও বর্বোরোচিত হামলা চালিয়েছে সরকারি দলের সিদ্ধান্তেই পুলিশের ছত্রছায়ায় হেলমেট ও মুখোশ পরে আগ্নেয়াস্ত্র, লাঠি, কিরিচ, রামদা নিয়ে তারা হামলা চালায়। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সহিংস কোনো কর্মকাণ্ডে বিএনপি কখনো জড়িত ছিল না বলে জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শুক্রবার (১০ আগস্ট) সকালে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা জানান। বিএনপি মহাসচিব বলেন, আক্রমণকারীরা ছাত্রলীগ-যুবলীগকর্মী ছিল এটি আহত সব সাংবাদিক এবং শিক্ষার্থীরা বলেছে। কিন্তু তারপরও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তাদের বিচার করার জন্য নাম চান। এমন বাজে রসিকতায় তিনি আনন্দ পেতে পারেন কিন্তু দেশবাসী লজ্জিত হয়। বিএনপির এনেতা বলেন, কি বিচিত্র এই দেশ। আর বিচিত্র বলেই সরকার অপরাধ করে তার দায় চাপানোর চেষ্টা করছে আমাদের ওপর। তিনি আরো বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ভেতরে ঢুকে ছাত্রছাত্রীদের মারপিট করেছে ছাত্রলীগ-যুবলীগকর্মীরা। এসব কিছুই ঘটেছে পুলিশের চোখের সামনে এবং তাদের সহযোগিতায়। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ড. মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, গয়েশ্বরচন্দ্র রায়, বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীসহ প্রমুখ নেতা কর্মী।

শেয়ার করুণঃ

shares